আজ : বুধবার ║ ১৯শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

আজ : বুধবার ║ ১৯শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ║৫ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ║ ১৩ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

যে জিনিসগুলো শুধু সায়েন্স ফিকশনে ছিল, অথচ এখন বাস্তব

দেখা যাচ্ছে বৈজ্ঞানিক কল্প-কাহিনিভিত্তিক চলচ্চিত্র নির্মাতা এবং লেখকরা আধুনিক প্রযুক্তির সত্যিকারের আবিষ্কারক৷ মাত্র কয়েক দশক আগে এসব চলচ্চিত্র বা বইয়ে যেসব জিনিসপত্রের কথা বলা হয়েছিল আজ তা নিত্যদিনের ব্যবহার্য বস্তু৷

কথা বলা কম্পিউটার

১৯৬৮ সালের চলচ্চিত্র ‘২০০১-আ স্পেস ওডিসি’ তে নির্মাতা স্ট্যানলে কুবরিক দেখিয়েছিলেন মানুষ ও কম্পিউটার কীভাবে একে অপরের সঙ্গে যোগাযোগ করে৷ কম্পিউটার হাল ৯০০০-কে (ছবিতে দেখা যাচ্ছে) যখন বন্ধ করার কথা ভাবছিলেন এর মালিক, ঠিক তখনই গুপ্তঘাতকে পরিণত হয় এটি৷ তবে আধুনিক কম্পিউটার সহযোগী সিরি বা কর্টানা এখনও পর্যন্ত মানুষের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ আচরণ করছে৷

ডিজিটাল নোটপ্যাড

২০১০ সালে অ্যাপল যখন তাদের প্রথম আইপ্যাড বাজারে আনে, স্টারট্রেক ভক্তরা এতে মোটেও অবাক হননি, কেননা, ৩০ বছর আগে থেকেই স্টারট্রেকের সৌজন্যে তারা এ ধরনের যন্ত্রের সঙ্গে পরিচিত ছিলেন৷ ক্যাপ্টেন পিকার্ড এবং তার ক্রুরা এ ধরনের প্যাড ব্যবহার করতেন একে অপরের সঙ্গে তথ্য বিনিময় ও রিপোর্ট লেখার জন্য৷

তারহীন ফোন

স্টার ট্রেকের আরেকটি আবিষ্কার হলো কমিউনিকেটর, যার সাহায্যে ক্যাপ্টেন কার্কের ক্রুরা দূরের অন্য গ্রহ থেকে মহাকাশযানের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করত৷ আর বাস্তবে মোটোরোলা বিশ্বের প্রথম ফ্লিপ ফোনের নাম রেখেছিল ‘স্টারট্যাক’৷ এটাকে কাকতালীয় ছাড়া আর কি বলবেন!

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email
Share on print
Print

আজকের সর্বশেষ সংবাদ