আজ : শনিবার ║ ১৮ই মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

আজ : শনিবার ║ ১৮ই মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ║৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ║ ১০ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

চট্টগ্রাম সিটি মেয়রের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হন সাংসদ বাদল ও নওফেল

দেশচিন্তা নিউজ ডেস্ক:

মনোনয়ন পেয়ে নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাসির উদ্দীনের সাথে সৌজন্য সাক্ষাত করলেন ব্যারিস্টার মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল ও সাংসদ মাঈন উদ্দিন খান বাদল। চট্টগ্রাম- ৯ (কোতোয়ালী-বাকলিয়া) আসনে ব্যারিস্টার মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এবং চট্টগ্রাম-৮ (বোয়ালখালী-চান্দগাঁও) আসনে সাংসদ মাঈন উদ্দিন খান বাদল আগামী ৩০ শে ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১৪ দলীয় জোটের প্রার্থী। জনাব নওফেল বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এবং সাংসদ মাঈন উদ্দিন খান বাদল বাংলাদেশ জাসদ কেন্দ্রীয় কার্যকরী সভাপতি। ২৭ নভেম্বর মঙ্গলবার বিকেলে এই দু”নেতা সিটি কর্পোরেশন ভবনে সিটি মেয়রের কার্যালয়ে আসলে মেয়র তাদেরকে স্বাগত জানান। সাক্ষাতকালে নেতৃবৃন্দ আসন্ন সংসদ নির্বাচনে সিটি মেয়রের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন। মেয়র বলেন আমি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতি জননেত্রী শেখ হাসিনার একজন নগন্য কর্মী। একজন কর্মী হিসেবে নেত্রীর নির্দেশ অক্ষরে অক্ষরে পালন করে যাব। এতে আমার কোনো কার্পণ্যতা থাকবে না বলে এই দু”নেতাকে আশ্বস্থ করলেন । এই প্রসংগে তিনি আরো বলেন চট্টগ্রামের মানুষ চট্টগ্রামের সকল আসন নেত্রীকে উপহার দিতে চাই। এই লক্ষে আমরা ভোটারদের ঘরে ঘরে গিয়ে নৌকার ভোট নিশ্চিত করব। তাই নগর আওয়ামীলীগের হাজারও নেতাকর্মী নির্বাচনী উৎসবে নিজেদের সম্পৃক্ত করতে প্রস্তুতি নিয়েছে। বৈঠকে মেয়র আগামীকাল বুধবার মহানগরীর ৬টি আসনের প্রার্থীদের নিয়ে চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে মনোনয়ন ফরম দাখিল করার কথা উল্লেখ করেন।
এই সময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে ব্যারিস্টার মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন স্থানীয় সরকার কাঠামো শক্তিশালী করার লক্ষ্যে তার মরহুম পিতা সাবেক মেয়র আলহাজ্ব এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী যে উদ্যোগ নিয়েছিল,তা বাস্তবায়ন করতে বদ্ধপরিকর।তাঁর পিতার অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করতে নগরবাসীর দোয়া কামনা করেন। আগামী জাতীয় সংষদ নির্বাচনে নির্বাচিত হলে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন এর সাথে আলাপক্রমে নগরীর সেবাধর্মী সংস্থাগুলোর মধ্যে সমন্বয় সাধন পূর্বক প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেবেন বলে তিনি সাংবাদিকদের জানান। তিনি আরো বলেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ নতুন প্রযুক্তিকে তরুনদের সামনে তুলে আনার লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশন দেশে যে ৬টি আসনে ইভিএম এর মাধ্যমে নির্বাচণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তাকে আমরা স্বাগত জানাই। সৌভাগ্যক্রমে লটারীর মাধ্যমে চট্টগ্রাম – ৯ আসন নির্বাচিত হয়েছে।
অপরপ্রার্থী সাংসদ মাঈন উদ্দিন খান বাদল জননেত্রী শেখ হাসিনা প্রার্থী নির্বাচনীর ক্ষেত্রে যে সিদ্ধান্ত দিয়েছেন তা সঠিক বলে তিনি মন্তব্য করেন। তিনি আসন্ন নির্বাচন প্রসঙ্গে শেখ হাসিনার বক্তব্যর কথা উল্লেখ করে বলেন নির্বাচনে জনগণ যদি ভোট দেয় তাহলে আবার ক্ষমতায় আসব। আর যদি নাও আসেন তাহলে আফসোস নেই। কারন বাংলাদেশকে যে উন্নয়নের মহাসড়কে তুলে দিতে তিনি সক্ষম হয়েছেন তার থেকে বাংলাদেশকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হবে না। এ প্রসঙ্গে এমপি বাদল বলেন এর চেয়ে আর কি হতে পারে। ইনশাআল্লাহ আগামী নির্বাচনে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি সংখ্যাগরিষ্ট আসন নিয়ে আগামীতে সরকার গঠন করবে বলে তিনি প্রত্যাশা রাখেন। এসময় প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, সফিক আদনান,শফিকুল ইসলাম ফারুক, কাউন্সিলর জহর লাল হাজারী,কফিল উদ্দিন খান,নাজমুল হক ডিউক,তারেক সোলাইমান সেলিম, জহুরুল আলম জসিম, সাহেদ ইকবাল বাবু, মোহাম্মদ হোসেন হিরন, এইচ এম সোহেল, সলিম উল্লাহ বাচ্চু, আঞ্জুমান আরা বেগম সহ আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গসংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email
Share on print
Print

আজকের সর্বশেষ সংবাদ