আজ : শনিবার ║ ২রা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

আজ : শনিবার ║ ২রা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ║১৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ║ ২১শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

সীতাকুন্ডে সীমা অক্সিজেন প্লান্টে শ্রমিক হতাহতের প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল

স্টাফ রিপোর্টার : গতকাল সীতাকুন্ডে সীমা অক্সিজেন প্লান্টে বিস্ফোরনে ৭ জন শ্রমিক নিহত এবং ৩০ জনের বেশি শ্রমিক আহত হওয়ার প্রতিবাদে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল আজ ৫ মার্চ বিকেলে অনুষ্ঠিত হয়। শ্রমিকনেতা হাসিবুর রহমান বিল্পবের সভাপতিত্বে এবং মোঃ জাবেদ আলমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জাতীয়তাবাদী শ্রমিকদল চট্টগ্রাম বিভাগীয় সভাপতি এবং বিলস-এলআরএসসি সেন্টার কোর্ডিনেশন কমিটির চেয়ারম্যান এ এম নাজিম উদ্দিন, রিজওয়ানুর রহমান খান, ইপ্সার মোহাম্মদ আলী শাহীন, ব্রাইট বাংলাদেশ ফোরামের সোহেলুদ্দোজা সোহেল, ফজলুল কবির মিন্টু, উজ্জ্বল বিশ্বাস, এডভোকেট ইকবাল হোসেন, মোহাম্মদ আলমগির হোসেন প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, কলকারখানা ও বিভিন্ন কর্মক্ষেত্রে কর্মরত শ্রমিকদের জীবনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দায়িত্ব মালিকের আর নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য মালিকের পক্ষ থেকে যথাযথ উদ্যোগ গৃহীত হয়েছে কিনা তা রাষ্ট্রের পক্ষ থেকে তদারকি করার জন্য রয়েছে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর, ফায়ার সার্ভিস ও বিস্ফোরক অধিদপ্তরসহ বিভিন্ন সরকারী দপ্তর। এই সকল রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করতে ব্যর্থ হচ্ছে বলে চরম অনিরাপদ কর্ম পরিবেশে শ্রমিকেরা কাজ করতে বাধ্য হচ্ছে। বিগত ২০২২ সালে চট্টগ্রামে বিভিন্ন কর্মক্ষেত্রে মোট ২৩৮ জন শ্রমিক নিহত হয়েছে। তন্মধ্যে বিএম ডিপোতে ৫০ জনের বেশী শ্রমিক মারা যায়। প্রতিটি দুর্ঘটনার পরে দুই একদিন তৎপরতা দেখা গেলেও অল্প কিছুদিনের মধ্যে তা চাপা পড়ে যায়। দুর্ঘটনার জন্য প্রকৃত দায়ী কারা তা কখনোই চিহ্নিত করা হয়না। তারা বলেন, শ্রমিকের জীবন ফেলনা নয়। বছরের পর বছর এভাবে অনিরাপদ কর্মপরিবেশে কাজ করতে পারেনা। শ্রমিকনেতারা, কর্মক্ষেত্রে দুর্ঘটনার জন্য দায়ী ব্যক্তি,প্রতিষ্ঠান ও সংশ্লিষ্ট সরকারী কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জোর দাবী জানান।

সভায় বক্তারা, আইএলও কনভেনশন ১২১ অনুসারে কর্মক্ষেত্রে দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবারকে প্রত্যেক শ্রমিকের আজীবন আয়ের সমান ক্ষতিপূরণ প্রদান, আহতদের সুচিকিৎসা নিশ্চিত করে তাদের মধ্য যারা স্থায়ী পঙ্গু হয়ে যাবে তাদেরকে আজীবন আয় এবং ভোগান্তি হিসাব করে ক্ষতিপূরণ নির্ধারন করার দাবি জানান।
বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে এক প্রতিবাদী বিক্ষোভ মিছিল নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email
Share on print
Print

আজকের সর্বশেষ সংবাদ