আজ : রবিবার ║ ১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

আজ : রবিবার ║ ১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ║২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ║ ১০ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

চট্টগ্রামে গ্রিন এ- পিপিপি কনভেনশন এ- এক্সপো ২০১৮ সমাপণী অনুষ্ঠানে এম এ সালাম বলেন- দেশের উন্নয়ন অগ্রগতির সহযাত্রী হিসেবে কাজ করছে বিআইএফএফএল

দেশচিন্তা নিউজ ডেস্ক:

চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এম এ সালাম বলেছেন, বাংলাদেশ সরকারের অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ইনফ্রাসট্রাকচার ফাইন্যান্স ফা- (বিআইএফএফএল) দেশের এমডিজি এবং এসডিজি অর্জনে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখছে। চট্টগ্রামে প্রথমবারের মত গ্রিন অ্যান্ড পিপিপি কনভেনশন অ্যান্ড এক্সপো আয়োজনের জন্য তিনি আয়োজকদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, এর মাধমে চট্টগ্রামের উদ্যোক্তারা পরিবেশবান্ধব শিল্প কারখানা গড়ে তোলার মাধ্যমে দেশের সার্বিক উন্নয়নে অংশীদার হওয়ার সুযোগ পাবেন। নতুন উদ্যোক্তা তৈরি হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। তিনি টেকসই এবং পরিবেশবান্ধব উন্নয়নের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রী জানেন আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য এদেশকে সুনিপুনভাবে গড়ে তুলছেন। দেশের এই উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রার সহযাত্রী হিসেবে বিআইএফএফএল যে ভুমিকা রাখছে, তা অব্যাহত রাখার আহবান জানান।
রবিবার ৭ অক্টোবর বিকালে জিইসি কনভেনশন সেন্টারে বাংলাদেশ ইনফ্রাস্ট্রাকচার ফাইন্যান্স ফান্ড লিমিটেড (বিআইএফএফএল) আয়োজিত গ্রিন অ্যান্ড পিপিপি কনভেনশন অ্যান্ড এক্সপো’র সমাপণী অনুষ্ঠানে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ মন্তব্য করেন।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিআইএফএফএল এর প্রধান নির্বাহি কর্মকর্তা এস এম ফরমানুল ইসলাম। বক্তব্য রাখেন চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার বিচারক দৈনিক পূর্বকোণের চীফ রিপোর্টার নওশের আলী খান, অবসরপ্রাপ্ত ফ্রিলেন্স আর্টিস্ট নাজলী লায়লা মনসুর, অধ্যাপক যুবরাজ জাহেদ প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের সদস্য মো. শওকত আলম। প্রতিযোগিতায় প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণির ৩০০ শিশু অংশগ্রহণ করে। শিশুদের প্রকৃতি এবং সবুজের প্রতি আকৃষ্ট করতে মেলার প্রথম এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে বলেও জানান আয়োজকরা। প্রতিযোগিতার প্রথম পুরুস্কার ৫০ হাজার টাকা, দ্বিতীয় পুরুস্কার ৩০ হাজার টাকা ও তৃতীয় পুরুস্কার ২০ হাজার টাকা প্রদান করা হয়। এছাড়া চতুর্থ পুরষ্কারসহ মোট ২৪টি পুরষ্কার দেয়া হয়। চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে প্রধান অতিথি পুরষ্কার বিতরণ করেন।
শেষে সঙ্গীত পরিবেশন করেন শিল্পী ফাহমিদা নবী এবং ফকির শাহাবুদ্দিন।
অংশগ্রহণকারি প্রতিষ্ঠানসমূহ হল সেনাবাহিনীর জলসিড়ি আবাসন প্রকল্প, সিটি ব্যাংক লি. সিটি ক্যাপিটাল লি., বিএসআরএম, ম্যাক্স ইনফ্রাস্ট্রাকচার, দেশ এনার্জি লি. নাগরিক টিভি, বাংলা ট্র্যাক পাওয়ার লি. রয়েল টিউলিপ সী পার্ল, স্যানমার প্রপার্টিজ, এক্সিলন ইঞ্জিনিয়ারিং, মিশন এশিয়া পাওয়ার, ইউনিক্লিন টেকনোলজি, ইকো ফ্রেন্ড, প্রিমিয়ার বিশ^বিদ্যালয়, সাদার্ণ বিশ^বিদ্যালয়, সার্জিকেয়ারসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email
Share on print
Print

আজকের সর্বশেষ সংবাদ