আজ : সোমবার ║ ১৫ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

আজ : সোমবার ║ ১৫ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ║২রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ║ ৬ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

তথ্য চাওয়ায় দোহাজারী পৌর কাউন্সিলার ইদ্রিসের হাতে সাংবাদিক আনসারী লাঞ্চিত

মুহাম্মদ ফরিদ উদ্দীন, চন্দনাইশ-সাতকানিয়া আংশিক (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি : চন্দনাইশ উপজেলার প্রবীণ সাংবাদিক আবু তালেব আনছারী পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে ওয়ার্ডের কাউন্সিলের কাছে শারীরিকভাবে লাঞ্চিত হওয়ার অভিযোগ করলেন ভোরের কাগজের চন্দনাইশ প্রতিনিধি আবু তালেব আনছারী। রবিবার (১৭ মার্চ) দুপুর ১২টায় দোহাজারী পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী মো. নাঈম উদ্দীনের কক্ষে এ ঘটনা ঘটে।

 

আবু তালেব আনছারী চন্দনাইশ প্রেস ক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি তিনি ঐদিন সকালে দোহাজারী পৌরসভায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৪তম জন্মদিন উপলক্ষে সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়েছিলেন তিনি। সংবাদ সংগ্রহ শেষে সহকারী প্রকৌশলী মো. নাঈম উদ্দীনের কাছ থেকে পৌরসভায় চলতি বছরের কয়টি প্রকল্প বরাদ্দ হয়েছে এবং কত ব্যয় হয়েছে এবং ৫ নম্বর ওয়ার্ডের একটি সড়ক নিয়ে তথ্য চান।

 

একপর্যায়ে ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ইদ্রিচ মিয়া সেখানে হাজির হন এবং তার ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে শারীরিক ভাবে লাঞ্চিত করে মোবাইল ফোন কেড়ে নেন। এরপর ৫ নম্বর ওয়ার্ডে ওই সড়কের দুর্ভোগ নিয়ে তোলা ছবিগুলো মুছে দিতে গিয়ে ফোনের ডিসপ্লে ভেঙে ফেলেন। পরে এ নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করলে প্রাণহানির হুমকিও দেন। এ ঘটনায় বিকালে চন্দনাইশ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন ভুক্তভোগী সাংবাদিক আবু তালেব আনছারী বলেন, ‘তথ্য চাওয়ায় কাউন্সিলর ইদ্রিচ মিয়া আমার গায়ে হাত তুলেছেন। আমার মোবাইল ফোন কেড়ে নিতে গিয়ে ডিসপ্লে ভেঙে ফেলেন। এ ঘটনায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছি।’

চন্দনাইশ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) যুযুৎসু যশ চাকমা বলেন, ‘সাংবাদিকের ওপর হামলার বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে দ্রুত আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email
Share on print
Print

আজকের সর্বশেষ সংবাদ